‍”ঈদ মোবারক্!!”

আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর‘, মুসলমানদের জন্য মহা খূশীর ও পবিত্র একটি দিন

এলিনের ভূবনেরপক্ষ থেকে সকলকে ঈদ মোবারক‘!!

এলিন
এলিনের ভূবন, ২০০৮

সপ্তাহের সেরা দশ গেইম

১. পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান : অ্যাট ওয়ার্ডস অ্যান্ড

২. টুম্ব রাইডার : অ্যানিভার্সারি

৩. ডার্ট

৪. প্রো-সাইক্লিং ম্যানেজার : ট্যুর ডি ফ্রান্স ২০০৭

৫. ট্রান্সফরমারস : দ্য গেম

৬. দ্য সিমস ২

৭. হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য অর্ডার অফ দ্য ফনিক্স

৮. এনিমি এনগেজড

৯. দ্য সিমস : পেট স্টোরিজ

১০. সিড মেয়ারস সিভিলাইজেশন ৪ : বিয়ন্ড দ্য সোর্ড

উৎস : বিডিনিউজ (২০০৮)

কম্পিউটার গেমস নিয়ে কিছু কথা

কম্পউটারের কথা মনে হলেই প্রথমে যে বিষয়ের কথা মনে হয়, তা হলো কম্পিউটার গেমস। কম্পিউটার আছে কিন্তু গেমস নাম এমন পিসি খুব একটি দেখা যায় না।

গেমস শুধু এখন আর বাচ্চাদেরই পছন্দ তা নয়, বড়রাও গেমস খেলতে খুব পছন্দ করেন। আমেরিকায় সব থেকে বেশী গেমস খেলতে দেখা যায় যাদের বয়স ৩০ বা উপরে।

গেমস যারা খেলে তারা সময় কাটানোর জন্য শুধু গেমস খেলে তা নয়, এমনও হয় গেমস খেলতে খেলতে তারা অন্যান্য কাজের সময়ও হারিয়ে ফেলে। এখন সময় কাটানোর জন্য কেউ গেমস খুঁজে না বরং গেমস খেলা জন্য সময় খুঁজে।

কম্পিউটার গেমস গণিতে দক্ষতা বাড়াতেও সাহায্য করে থাকে। দেখা গেছে প্রতিদিন নিয়মিত কম্পিউটার গেমস খেললে গণিতে দক্ষতা বাড়ে।

সম্প্রতি স্কটিশ স্কুলগুলোতে এ ব্যাপারে একটি গবেষণা চালিয়ে এর প্রমাণ মিলেছে। স্কটল্যান্ডের লার্নিং অ্যান্ড টিচিং স্কটল্যান্ড নামের একটি প্রতিষ্ঠান ‘ব্রেইন ট্রেনিং’ নামের একটি কম্পিউটার গেমের প্রভাব নিয়ে গবেষণা চালায়। লার্নিং অ্যান্ড টিচিং স্কটল্যান্ড কাজ করছে ইন্সপেক্টরেট অব এডুকেশন এবং ডান্ডি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে। গবেষণায় দেখা গেছে, কম্পিউটার গেমটি খেলায় শিক্ষার্থীদের মনঃসংযোগ ও আচরণে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটেছে।

The top five mobile phone manufacturers – 2008

The current rankings of the top five mobile phone manufacturers are:

1). Nokia (122 million units, with net sales of $21 billion)
2). Samsung (46.3 million units, with net sales of $6.531)
3). LG (27.7 million units, with net sales of $3.788 billion)
4). Motorola (27.4 million units, with net sales of $3.3 billion)
5). Sony Ericsson (24.4 million, with net sales of $4.457 billion)

Source : Internet (2008)

আজ বিশ্ব শালা-শালি দিবস

আজ ২৯শে সেপ্টেম্বর, বিশ্ব শালা-শালি দিবস। বিশ্বের সকল শালা-শালি আর দুলাভাইদের জন্য আজকের দিনটি অতীব আনন্দের। জানা যায়, আজ হতে ১২০০ বছর পূর্বে

আফ্রিকার গহীন জঙ্গলে “টুম্বুদ্র” উপজাতির এক দুলাভাইয়ের ঘুম ভেঙেছিল শালির হাতের চড় খেয়ে এবং সেই থেকেই শালা-শালি দিবসের প্রচলন। ব্যাপক উৎসাহ আর উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিবসটি আজ বাংলাদেশেও পালিত হবে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো: “শালি আধি ঘরওয়ালি” (অর্থাৎ শালি আধা-বউ) । দিবসটি উদযাপনে ব্যাপক কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে. যার মধ্যে রয়েছে: ওয়াটার কিংডমে শালি-দুলাভাইদের মিলনমেলা ও উদ্দাম নৃত্য (অবশ্যই স্ত্রীর অনুমতি ব্যতিরেকে), শালা-শালি-দুলাভাইদের হাতে হাত ধরে মানববন্ধন, শালা-শালি-দুলাভাইয়ের মধ্যে মধুর খুনসুটি আয়োজন প্রভৃতি। এছাড়াও বাংলাদেশ শালা-শালি গোষ্ঠী দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরতে এক সেমিনারের আয়োজন করেছে। ওদিকে বাংলাদেশ শালা-শালি সাংস্কৃতিক একাডেমী দুলাভাইদের জন্য “শালিদের রূপ-লাবণ্য” বিষয়ক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে। বাংলাদেশ স্ত্রী সংগঠন দিবসটির প্রতিবাদে মিছিল-মিটিং ও প্রতিবাদী অনশন আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সবমিলিয়ে এক জমজমাট শালা-শালি দিবস আমরা আশা করতে পারি। সামহোয়্যারবাসীকে রইলো আমার পক্ষ থেকে শালা-শালি দিবসের অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

উৎস : সামহয়্যার ইন ব্লগ (২০০৮)