Category Archives: এ্যামাজিং নিউজ

স্যান্ড আর্ট (Sand Arts) : অদ্ভুত এক শিল্প

‘Sand Art’ হচ্ছে এক প্রকারের শিল্প, যাতে বালি ব্যবহার করে করা হয় অনেক ধরনের শৈল্পিক কারুকাজ। যেমন : মানব শরীর, ভাস্কর্য, পশুপাখি, দালান-কোঠা, বাড়ি-ঘর, সমুদ্র সৈকত আরও অনেক কিছু। এই ধরনের শিল্পের ভিতরে শিশুদের জন্যও রয়েছে বিভিন্ন ধরনের কার্টুন চরিত্র ইত্যাদি। Sand-Arts-1

‘স্যান্ড আর্ট’ বিভিন্ন প্রকারের হয়ে থাকে। নেটিভ এমেরিকায় এক ধরনের ‘স্যান্ড আর্ট’ রয়েছে যা এক ধরনের পেইন্টিং হিসাবে পরিচিত। এই ধরনের ‘স্যান্ড আর্ট’ তৈরি হয় কিছুটা ভিন্নভাবে। যেমন : প্রথমে কাগজে পেনসিল দিয়ে আঁকা হয়, তারপর নির্দ্দষ্ট অংশ কাঁটা হয় এবং সেখানে রং মেখে রাখা বালি ঢেলে দেয়া হয়। ব্যবহার করা হয় গ্লু, রং, কাগজ ইত্যাদি। সবশেষে তা শুকাতে হয়।

খেলাধুলার কিছু ভিন্ন (সঠিক) মুহূর্ত … !!! :p

ক্রিকেট, ফুটবল, বাস্কেটবল ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের খেলার সময় দর্শক এবং খেলোয়াড়রা এতোই উত্তেজিত থাকে যে সেই উত্তেজনার মাঝে হারিয়ে যায় অনেক ধরনের মজার মুহূর্ত, যা আমাদের জন্য হতে পারে ভিন্ন ধরনের বিনোদন। funny-sports-photos

হ্যাঁ, খেলাধুলা শুধু শরীর গঠনের জন্য নয় তা বাড়াতে পারে আমাদের Sense of Humor (রশিকতাবোধ) গঠনের সেলগুলিও।

খেলোধুলার সময় এমন অনেক মুহূর্ত আমাদের চোখকে এড়িয়ে যায় যা অনায়াসেই হাসির উপকরণ হতে পারে।

কিন্তু আমাদের চোখকে এড়িয়ে গেলে কি হবে, ক্যামেরার চোখে ঠিকই ধরা পড়ে যায়। আর সেই সকল মজার মুহূর্ত নিয়ে আমার  এই পোস্টটি।

( বি. দ্র. এই পোস্টটি কোন খেলোয়াড়কে ব্যাঙ্গ করার উদ্দেশ্যে দেয়া হয় নাই। আমরা জানি এই ধরনের অস্বাভাবিক, হাস্যকর মুহূর্ত আসতেই পারে যে কারও জীবনে। আর আমি নিজেও খেলোয়াড়দেরকে শ্রদ্ধা করি। )

নিচে এমন আরও কিছু মুহূর্ত দেখুন :

এশিয়ান হাতি ‘কোশিক’ : যে কোরিয়ানদেরকে অনুকরণ করতে পারে

কোশিক নামে এক কোরিয়ান হাতি, বিজ্ঞানীদের অবাক করে দিয়েছিল কোরিয়ান ভাষার উপর দক্ষতা দেখিয়ে।
কোশিক একদম অবিকল কোরিয়ানদের নকল করতে পারতো।
যেমন : সে তার ট্রাইনারের সাথে যোগাযোগ করছিল এবং উত্তরে বলছিল ‘চোয়া’, তার বাংলা মানে হলও ‘ভালো’। korean elephant mimic
গবেষকদের রিপোর্টে : কোশিক এখনও ট্রেনিং অবস্থায় রয়েছে। আপাতত সে মোট ৫ টা শব্দ বলতে পারে অবিকল কোরিয়ানদের মত করে। আর সেগুলি হলও, ‘হ্যালো, না, বসও, শুয়ে পড় এবং ভালো’।

ইউটিউব লিংক : http://youtu.be/vrKa_pcimrI

উপরের লিংকটিতে একটি ভিডিও রয়েছে, যেখানে দেখানো হয়েছে ‘কোশিক বলছে চোয়া মানে ভালো’।

মৃত পাখি : যে ছিল নেশায় আচ্ছন্ন …

Dead birds were intoxicated, an investigation finds

কাম্ব্রিয়ার এক প্রাইমারী স্কুলের সামনে মরে থাকা এক ছোট্ট ব্লাকবার্ডকে পরীক্ষা করে দেখা গেছে পাখিটি ছিল মাতাল। অর্থাৎ পাখিটির শরীরে পাওয়া গেছে এলকহোল।

পশুপাখির বিশেষজ্ঞ এ ডজন পাখিকে পরীক্ষা করে যারা সেই প্লে গ্রাউন্ডেই ছিল, এবং তাদের অনেকেরই মানুষিক আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত দেখা গেছে।

আর মৃত সেই পাখিটিকে ‘ময়নাতদন্ত করে দেখা গেছে তার লিভারে জমে ছিল একদম শুদ্ধ এলকহোল, যার পরিমাণ ছিল অনেক।

অবশেষে সেই পাখিদের যারা জীবিত ছিল তাদের ভালো করে দেখাশুনা করায় একসময় তারা সুস্থ হয়ে উঠে।

চীনের এক অদ্ভুত বাড়ি – ‘পিয়ানো হাউজ’ !!

Piano-House-in-ChinaCubeme

এই পিয়ানো হাউজটি অবস্থিত চীন দেশে। চীনের হেফাই ইউনিভার্সটি অফ টেকনোলজির ”আর্কিটেকচারাল ডিজাইন ফ্যাকাল্টি’ এর এক দল ছাত্র এই বাড়িটি ডিজাইন করেছে। তাদের কাজে সাহায্য করেছিল একটি ডিজাইনার কোম্পানি নাম, ‘হুয়াই-নান ফ্যাঙ্কাই ডেকোরেশন প্রজেক্ট’।

এই পিয়ানো হাউজটি রয়েছে, চীনের হুনাইনান শহরে। এই বিল্ডিংটি ডেভেলপ করা হয়েছে মিউজিক প্রেমীদের এবং আশেপাশের মিউজিক্যাল কলেজের স্টুডেন্টদের জন্য।

পিয়ানো হাউজটির ডিজাইনে রয়েছে দুইটি মিউজিক্যাল ইনস্ট্রূমেন্ট, একটি ট্রান্সপারেন্ট ভাইওলিন যার ভিতর থেকে দেখা যেতো বাড়িটিকে এবং আরেকটি পিয়ানো।

এই পিয়ানো হাউজটি লোকাল গোভারনমেন্টের অনুমতিতে ডেভেলপ করা হয়েছে।