Tag Archives: 2009

বিখ্যাতদের রসাল ঘটনা

দামি বলে

খ্যাতিমান শিল্পী পাবলো পিকাসোর বাড়িতে একদিন এক অতিথি এলেন বেড়াতে। সারা বাড়ি ঘুরে তিনি ভীষণ অবাক। বাড়িতে অনেক কিছুই আছে, কিন্তু পিকাসোর কোনো চিত্রকর্ম নেই। এত বড় একজন শিল্পীর বাড়িতে তাঁর নিজের আঁকা ছবি থাকবে না, এ কেমন কথা! কৌতুহল দমাতে না পেরে তিনি পিকাসোকে জিজ্ঞেস করে বসলেন, ‘কী ব্যাপার, বাড়িতে আপনার আঁকা কোন ছবি নেই কেন?’ পিকাসো দীর্ঘশ্বাস ফেলে জবাব দিলেন, ‘আমার এত টাকা কোথায় যে বাড়িতে পিকাসোর ছবি থাকবে? তাঁর ছবিগুলোর যে দাম!’

লেখা : এলিন

উৎস : প্রথম আলো

কিছু জোকস নিয়ে এলাম…

‘মহীলার এ্যাপেন্ডিসাইটিসের অপারেশান’

এক মহীলা বাসে সীট না পেয়ে বলছে – ‘আমাকে যদি সীটে বসতে দেন, তাহলে আমি দেখাবো কোথায় আমার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশানটা হয়েছিল।’

সাথে সাথে কিছু ছেলে সীটে জায়গা করে দিল। মহিলাটি জানালার পাশে বসে আছে। এবার ছেলেটি বলছে – ‘এখন দেখাবেন কি, আপনার অপারেশানটি কোথায় হয়েছিল?’

বাসটি একটি হাসপাতালের কাছে এলেই, মহীলাটি সাথে সাথে বলে উঠলো- ‘ঐ তো, ঐখানেই হয়েছিল’।

‘স্বার্গে ক্রিকেট খেলা’

– হ্যারে, স্বর্গে কি ক্রিকেট খেলা হয়?

– অবশ্যই হয়। আমি স্বপ্নে গতকালই তো দেখলাম, স্বর্গে ক্রিকেট খেলা হচ্ছে। আর আগামীকালই তো তুই ব্যাট করছিস।

‘ইন্ডয়াতে যা হয় নি তাই আমেরিকাতে হলো’

( আমেরিকাতে কার্তিকদা ) কার্তিকদা বলছে, ‘ইন্ডিয়াতে যা হই নি আমেরিকাতে তাই হলো’।

– কি হলো!?

– এক আমেরিকান মেয়ের কাছে গেলাম, হাত ধরলাম, আর ইন্ডিয়াতে যা হই নি তাই হলো।

– কি হলো আর‍!?

– মেয়েটি কিছুই বলল না। তারপর আমি মেয়েটির সাথে তার বাসায় গেলাম। আর ইন্ডিয়াতে যা হই নি তাই হলো।

– কি, কি হলো…?

– মেয়েটির বাসায় গিয়ে তার বেডরুমে গেলাম। আর ইন্ডিয়াতে যা হই নি তাই হলো।

– আর কি হলো, বলো না?

– মেয়েটি কিছুই বলল না। তার স্বামী এলো। আর….

– আর? আর কি হলো!?

– আর কি হবে? ইন্ডিয়াতে যা হয়, তাই হলো। ইচ্ছামতো পেটালো।

‘মিলিটারির সাহস পরীক্ষা’

মিলিটারিদের সাহস পরীক্ষা করছে তাদের প্রধান। এক মিলিটারিকে দুরে দাঁড় করিয়ে রেখে মাথায় লেবু রেখে বন্দুক দিয়ে সেই লেবুটিকে গুলি করল। মিলিটারিটি একদম নড়ল না। লেবুটি ফেঁটে গিয়ে তার শার্টটিকে নষ্ট করে দিল।

তাদের প্রধান তাকে ৫০ টাকা দিয়ে বলছে- ‘সাবাস, এই টাকা দিয়ে সাবান কিনে শার্টটি ধুঁয়ে নিও’।

মিলিটারিটি বলল – ‘তাহলে আরোও ৫০ টাকা দিন, প্যান্টটিও ধুঁতে হবে’।

( এই লেখা আমি কয়েকদিন আগে টিভিতে ‘মিরাক্কেল’ এ শুনেছিলাম। আজ যতটুকু সম্ভব লিখেছি। হয়তো বা গুঁছিয়ে লেখা হয় নি। তবুও শেয়ার করতে ইচ্ছা হলো। )

লেখা : এলিন (২০০৯)

উৎস : টিভিতে শুনেছি

কম্পিউটারের সময়ও এক ঘণ্টা এগিয়ে নিতে হবে

দিনের আলো সংরক্ষণ ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য কাল ১৯ জনু মধ্যরাত থেকে দেশে ঘড়ির কাঁটা এক ঘণ্টা এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে। নতুন সময়সূচির সঙ্গে মাইক্রসফটের কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহৃত ঘড়ির সময়ও ঠিক করে নিতে হবে। এ জন্য দরকারি সমাধান দিয়েছে মাইক্রোসফট বাংলাদেশ। যেসব কম্পিউটারে উইন্ডোজ ভিসতা, উইন্ডোজ এক্সপি, উইন্ডোজ সার্ভার ২০০৮ ও উইন্ডোজ সার্ভার ২০০৩ চালু রয়েছে, সেসব কম্পিউটারে এ সমাধানটি কাজে লাগাতে পারবে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মাইক্রসফট বাংলাদেশ এ তথ্য জানায়।

সময়-সংক্রান্ত সমাধানটি পেতে মাইক্রসফটের করপোরেট ওয়েবসাইট http:/support.microsoft.com/kb/972423 গিয়ে .msi ফাইলটি নিজের কম্পিউটারে নামিয়ে নিতে হবে। (ফাইলটি ডাউনলোড করতে সমস্যা হলে সরাসরি http://go.microsoft.com/?linkid=9670105 এ ক্লিক করে ডাউনলোড করে নিন) তারপর ইনস্টল করে নিতে হবে। এবার কন্ট্রোল প্যানেলে date and time অপশনে গিয়ে Time Zone Settings-এ ক্লিক করুন। এখানে (GMT + 06.00) Astana, Dhaka এর পরিবর্তে (GMT + 06.00) Dhaka’ নির্বাচন করুন। দিনের আলো সংরক্ষিত সময় (DST) কার্যকর করতে ‘Automatically adjust clock for daylight saving changes’-এর ঘরে টিক চিহ্ন দিন। সবশেষে Apply করে OK করুন। ফলে ১৯ জুন রাত ১১টা থেকে সময় পরিবর্তিত হয়ে যাবে।

লেখা : এলিন (এডমিন) ২০০৯

সূত্র : প্রথম-আলো

জীবনের প্রথম চাকরি-ইন্টারভিউ…(!?)

আমার চাকরির জন্য হঠাৎ করে আমি নিজেই একবার ট্রাই করে বসলাম। ( কিছুদিন অন্যদের এই ব্যাপারে ট্রাই করতে বলেছিল আমার মা, নিজের লোকোরা আসলেই কোন উপকারে আসতে চায় না। এতোদিন আমি নিজে চেষ্টা করি নাই। ভালো লাগে না চাকরি করতে। ) যাহোক, এইবার আম্মা বলায় আমি বিডিজবস এ একবার একটা জব এর জন্য এপ্লাই করে ফেললাম। খান ব্রাদারস ইনফরটেক এর একটা ফ্রীল্যান্সের জব। অবাক করে দিয়ে আমার কাছে একটা কল চলে এলো দু’দিন পরেই খান ব্রাদারস থেকে। আমাকে একবার যেতে বলেছে। আমি গেলাম। বিশাল একটা অফিস। শান টাওয়ারে। শান্তিনগরের চামেলীবাগে। আমার সাথে কথা বলে খুবই আনন্দিত হয়ে আমাকে জুলাই এর ১ তারিখ বলেছে ফোন করে ডেট বলে দেবে। আমি তো ভেবেছিলাম কি না কি জিজ্ঞাসা করে। কিন্তু আমার সাইটগুলো দেখে আর আমি সিআইএস ( কম্পিউটিং ইনফরমেশান সিস্টেমস ) এর ছাত্র শুনে আর কিছুই জিজ্ঞাসা না করে বলল, আমি কেমন স্যালারি আশা করছি। মানে সব ঠিক। আমি তো মোটামুটি অবাক হলাম। এসব তো কোন ভয়ের কিছু না, আগে ভাবতাম অনেক কঠিন কি যেন। জুলাই এ চাকরী মোটামুটি রেডী করে বাসাতে আসার সময় আবার জানতে পারলাম আমাদের ড্যাফোডীলের একটি জবের জন্য সামসুদ্দিন স্যার আমাকে যেতে বলেছে। এই তো পরেছি মহা চিন্তায়!!
এখন আমি জুলাই এর ১ তারিখে কোনটা করবো – স্যারের টা নাকি খান ব্রাদারস এর টা। স্যারেরটা না করলে স্যার কি মনে করবে, আর খান ব্রাদার্সের টা আমি কি বলি তাদের!? দেখি জুলাই আসুক, কি হয়।
যা হোক আমার চাকরীর জন্য নিজের প্রথম চেষ্টাটাই সফল। মজাই লাগছে!!
লেখা : এলিন (এডমিন) ২০০৯

অনলাইনে টিভি দেখা

অনলাইনে সরাসরি টিভি দেখার এক সুযোগ করে দিয়েছে এই সাইটটি। এছাড়াও এতে প্রযুক্তিবিষয়ক অনেক কিছুই আছে যা পড়ে অনেকেই উপকৃত হতে পারে। তবে এখনও ভালো করে আপডেট হয় নি সাইটটি।

সাইটটি হলো : www.bdweb.ucoz.com

লেখা : এলিন (২০০৯)