Tag Archives: বাজার

এন্ড্রয়েড সমাচার : বেসিক আলোচনা – (পর্ব : ২)

স্মার্ট-ফোন :

স্মার্ট-ফোন হচ্ছে একটি ফোন যা তৈরি করা হয়েছে বিশেষ কিছু বাড়তি সুবিধা দিয়ে। সাধারণত একটি স্মার্ট-ফোনে পিডিএ, ডিজিটাল ডায়েরী, পোর্টেবল মিডিয়া প্লেয়ার, ডিজিটাল ক্যামেরা, পকেট ভিডিও ক্যামেরা এবং জিপিএস ন্যাভিগেশনের সকল সুবিধাই থাকে। আরও থাকে ওয়াই-ফাই এবং অনেক কিছু।

সহজ কথায় বলতে গেলে বলতে হয় স্মার্ট টেকনোলজি’ব্যবহার করে যে সকল ফোন তাদের ‘স্মার্ট ফোন’ বলে।

স্মার্ট টেকনোলজি :

ইংরেজিতে ‘S.M.A.R.T.’ যার পূর্ণ রূপ হলও (Self-Monitoring, Analysis and Reporting Technology) একে আবার ‘SMART’ এইভাবেও লেখা হয়।

অর্থাৎ যে ডিভাইস নিজেই নিজেকে মনিটরিং (দেখাশুনা) করতে পারে, পর্যবেক্ষণ করতে পারে, সমস্যা নির্ণয় করতে পারে এবং সেই সাথে নিজেই রিপোর্ট প্রদান করতে পারে তাকে স্মার্ট টেকনোলজি বলা হয়।

যেমন : কোন স্মার্ট ডিভাইস নিজেই তার তাপমাত্রা পরিমাপ করবে (কতটুকু গরম হয়েছে), নিজেই এনালাইসিস করবে এই গরমটি উপযুক্ত কিনি, যদি গরম বেশি হয়ে যায় তাহলে রিপোর্ট দেবে এবং প্রয়োজনে নিজেই নিজেকে শাট-ডাউন বা বন্ধ করে দেবে।

কম্পিউটার বাজার ( আপডেট )

এখান থেকে খুবই গোছানোভাবে আপনারা কম্পিউটারের আপটেডেট বাজারদর জানতে পারবেন। আমি চেষ্টা করবো আপডেট খবর দেবার। তবে, প্রতিদিন তো সম্ভব হবে না (!) মাসে হয়তোবা একবার দেবো।  আপনারা তারিখ মিলিয়ে টপিকটি দেখবেন। এখানে পুরাতন বাজারদরও থাকতে পারে।

র‌্যাম আর প্রসেসরের দাম কমেছে

শনিবার ( নভেম্বর-২৯-২০০৮ ) পাওয়া যন্ত্রাংশের দাম নিচে দেওয়া হলো-

ঢাকার কম্পিউটার বাজারে র‌্যামের দাম কমেছে। এ ছাড়া প্রসেসরের দামও কিছুটা কমেছে। বাকি সব যন্ত্রাংশের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেচাকেনা ভালো বলেবিক্রেতারা জানান।

প্রসেসরঃ

সেলেরন ১·৮ডি গি·হা· ৩০০০ টাকা। ইন্টেল পেন্টিয়াম কোর টু কোয়াড কিউ ৬৬০০ ২·৪ গি·হা· ১৫০০০ টাকা। ইন্টেল কোর টু ডুয়ো ৩গি·হা ৪৫ এনএম ই৬৮৫০ (১৩৩৩ বাস ৬ মেবা ক্যাশ) ১৩,৬০০ টাকা। ইন্টেল কোর টু এক্সট্রিম ৩ গি·হা· কিউএক্স ৬৮৫০ (৮ মে·বা·, ক্যাশ ১৩৩৩৩ বাস) ৭৫০০০ টাকা। ইন্টেল কোর ডু ডুয়ো ২·৬৬ গি·হা· ৪৫ এনএম ১২৬০০ টাকা। পেন্টিয়াম ডুয়েল কোর ২ গি·হা· ৫২০০ টাকা। পেন্টিয়াম ডুয়েল কোর ২·২ গি·হা· ৫,৮০০ টাকা।

কম্পিউটার বাজার ( গত সপ্তাহ আপডেট )

এখান থেকে খুবই গোছানোভাবে আপনারা কম্পিউটারের আপটেডেট বাজারদর জানতে পারবেন। আমি চেষ্টা করবো আপডেট খবর দেবার। তবে, প্রতিদিন তো সম্ভব হবে না (!) মাসে হয়তোবা একবার দেবো।  আপনারা তারিখ মিলিয়ে টপিকটি দেখবেন। এখানে পুরাতন বাজারদরও থাকতে পারে।

কম্পিউটার যন্ত্রাংশের দাম কমেছে॥
গত সপ্তাহেই শেষ হলো এলিফ্যান্ট রোডের কম্পিউটার মেলা। মেলা উপলক্ষে বেশকিছু কম্পিউটার যন্ত্রাংশের দাম কমেছিল, যা এখনো অপরিবর্তিত আছে। বিক্রেতারা জানান, স্পিকার ছাড়া অধিকাংশ যন্ত্রাংশের দামই কিছু না কিছু কমেছে।

গতকাল শনিবার ( নভেম্বর-0৮-২০০৮ ) পাওয়া যন্ত্রাংশের দাম নিচে দেওয়া হলো-

প্রসেসরঃ

সেলেরন ১·৮ডি গি·হা· ২,৯০০ টাকা।
ইন্টেল পেন্টিয়াম কোর টু কোয়াড কিউ ৬৬০০ ২·৪ গি·হা· ১,৫০০ টাকা।
ইন্টেল কোর টু ডুয়ো ৩ গি·হা ৪৫ এনএম ই৬৮৫০ (১৩৩৩ বাস ৬ মেবা ক্যাশ) ১৩,৬০০ টাকা।
ইন্টেল কোর টু এক্সট্রিম ৩ গি·হা· কিউএক্স ৬৮৫০ (৮ মে·বা· ক্যাশ ১৩৩৩৩ বাস) ৭৫,০০০ টাকা।
ইন্টেল কোর ডু ডুয়ো ২·৬৬ গি·হা· ৪৫ এনএম ১২,৬০০ টাকা। কোর টু ডুয়ো ই ৪৬০০-২·৫৩ গি·হা· ৯,১০০ টাকা।
পেন্টিয়াম ডুয়েল কোর ২ গি·হা· ৫,২০০ টাকা।
পেন্টিয়াম ডুয়েল কোর ২·২ গি·হা· ৬,০০০ টাকা।

কম্পিউটার বাজার ( গতকালের আপডেট )

এখান থেকে খুবই গোছানোভাবে আপনারা কম্পিউটারের আপটেডেট বাজারদর জানতে পারবেন। আমি চেষ্টা করবো আপডেট খবর দেবার। তবে, প্রতিদিন তো সম্ভব হবে না (!) মাসে হয়তোবা একবার দেবো।  আপনারা তারিখ মিলিয়ে টপিকটি দেখবেন। এখানে পুরাতন বাজারদরও থাকতে পারে। আগামীতে আরো সুন্দর করে গুছিয়ে উপস্থাপন করবো বলেছিলাম। আগে সম্পূর্ণ বাজারদরটি একটি জেপিজি ফরম্যাটের ইমেজে এবং সকল বাজারদর একত্রে অগোছালোভাবে থাকতো। এতে দেখতে অসুবিধা হতো। আজ থেকে সরাসরি ইউনিজয় দ্বারা লেখা থাকবে। এতে করে লেখাগুলি পরিস্কার দেখা যাবে।

প্রযুক্তি বাজারে কেনাবেচা ভালোই চলছে। ঢাকার কম্পিউটার বাজারগুলো তেমন কোনো তেজীভাব না থাকলেও বিক্রেতারা এখন বেশ খুশীই। কেননা বেচাকেনা ভালোই হচ্ছে।

গতকাল শনিবার ( অক্টোবর-১৮-২০০৮ ) পাওয়া যন্ত্রাংশের দাম নিচে দেওয়া হলো-

প্রসেসরঃ
সেলেরন ১·৮ডি গি·হা· ২৯০০ টাকা।
ইন্টেল পেন্টিয়াম কোর টু কোয়াড কিউ ৬৬০০ ২·৪ গি·হা· ১৫২০০ টাকা।
ইন্টেল কোর টু ডুয়ো ৩গি·হা ৪৫ এনএম ই৬৮৫০ (১৩৩৩ বাস ৬ মেবা ক্যাশ) ১৩,৮০০ টাকা।
ইন্টেল কোর টু এক্সট্রিম ৩ গি·হা· কিউএক্স ৬৮৫০ (৮ মে·বা·, ক্যাশ ১৩৩৩৩ বাস) ৭৫০০০ টাকা।

পাসওয়ার্ড সুবিধাযুক্ত পেনড্রাইভ ‘এপাসার’

Apacer AH2.gifবাংলাদেশের বাজারে এসেছে ‘এপাসার’ ব্রান্ডের বিভিন্ন মডেল, বিভিন্ন রং -এর এবং বিভিন্ন ক্যাপাসিটির পেনড্রাইভ। নান্দনিক ডিজাইনের পাশাপাশি, প্রত্যেক মানুষের অনেক প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রেখে এতে সংযুক্ত হয়েছে অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তি।

পন্যটির বাংলাদেশে বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান কম্পিউটার সোর্স এর মার্কেটিং বিভাগের পরিচালক এস এম মুহিবুল হাসান এ পণ্যের মান ও দক্ষতার কথা উল্লেখ করে বলেন, “ক্রেতারা এই পণ্য ব্যবহারে অন্য যেকোন পণ্য থেকে এর পার্থক্য অনুভব করতে পারবেন।”

এতে সংশ্লিষ্ট সর্বাধুনিক অঈঊ প্রযুক্তি সম্পর্কে তিনি বলেন, “অঈঊ প্রযুক্তি যেকোন ফাইলকে এর মূল সাইজের চেয়ে ২০%-৫০% পর্যন- কমাতে সক্ষম। তাই অন্যান্য পেনড্রাইভে ১ জিবি তে যে পরিমান ফাইল সংরক্ষন করে, তার ৫ গুন বেশি ফাইল সংরক্ষন করতে পারে।”

অঈঊ প্রযুক্তি ছাড়াও এ পেনড্রাইভে সংরক্ষিত তথ্য-উপাত্তকে শত ভাগ নিরাপত্তা প্রদানের জন্য এতে আছে পাসওয়ার্ড সুবিধা। আর যদি ভুলে যান পাসওয়ার্ড, তারও ব্যবস্থা আছে। সেক্ষেত্রে কিছু সহজ পথ অনুসরন করে পুনরায় পাসওয়ার্ড সেট করা যাবে।

এতে আছে ব্রাইট গ্রিন ইন্ডিকেটর। এটি যখন কম্পিউটারের সাথে সংযুক্ত হয় বা যখন ডাটা ট্রান্সফার করে তখন এই ইন্ডিকেটরটি সিগন্যাল প্রদান করে। যেকোন অপারেটিং সিস্টেমেই এই পেনড্রাইভ ব্যবহার করা যাবে। আর এত সব সুবিধা বহন করছে যে পেনড্রাইভ, তার ওজন খুবই হালকা।

এমডিকে/১৯৪৩ ঘ./১০.০৬.০৮

উৎস : বিডিনিউজ (২০০৮)