Tag Archives: অফলাইন

আমার ডেভেলপ করা ডেস্কটপ-বেইসড জাভা প্রজেক্ট “MyWord Dictionary”

এখন আর কোন পোস্ট করাই হয় না। যা টুকটাক সবই ফেইসবুকে শেয়ার করে ফেলা হয়। এর জন্য আলাদা করে পোস্ট লিখে সেটা আবার ব্লগে পোস্ট করাটা কষ্টকর মনে হয়। আবার ব্লগটা খালিও রাখা যায় না। তাই ভাবছিলাম কিছু একটি পোস্ট করবো। এদিকে কয়েক বছর পর আবার জাভা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নিয়ে স্টাডি শুরু করেছি। আবার সেই বেসিকটাই শিখতে বসেছি। একেই বলে দূরত্ব। কোন কিছু থেকে বেশ কিছুদিন দুরে থাকলে তার সাথে সম্পর্কটা কমে যায়। জানিনা মানুষের সাথে মানুষের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই নিয়ম কার্যকর কিনা ! 🙂

যা হোক। কিছুদিন স্টাডি করার পর একটি প্রজেক্ট নিয়ে বসলাম। প্রজেক্ট করতে গিয়ে শিখলে সেটা মনে থাকে ও বিভিন্ন সমস্যা ধরা পরে আর শেখার পাশাপাশি একটি প্রজেক্টও করে ফেলা হয় যা ইচ্ছা হলেই পোর্টফলিওতে যুক্ত করা যায়।

splash screen of myword dictionary

MyWord Dictionary এর Splashscreen

Download : https://drive.google.com/open?id=0BwasIjIvyEvZRURaaEU4TTJia0E

ডাটাবেজ রিলেটেড প্রজেক্ট করবো তাই ডাটাবেজ খুঁজছিলাম নেটে। নতুন করে ডাটা টাইপ করতে অনেক সময় লেগে যাবে। পেয়েও গেলাম ডিকশনারি এর জন্য ডাটাবেজ কিছু। ইংরেজি থেকে বাংলা, বাংলা থেকে ইংরেজি ও ইংরেজি থেকে ইংরেজি। যা নিয়ে যদিও এমন কোন ডিকশনারি ডেস্কটপ সফটওয়্যার ডেভেলপ করা নাই আমি যা বুঝলাম। তাই ভাবলাম এগুলো ব্যবহার করেই প্রজেক্টটা করি। ইংরেজি থেকে ইংরেজি ডাটাবেজটা ওপেন-সোর্স যা গুটেনবার্গ এর সাইটে দেয়া আছে। তবে ডাটাবেজগুলো SQLite এ ছিল না। আমার কনভার্ট করে নিতে হয়েছিল।

এখানে আমি JDK8, NetBeans8.2 এবং SQLite এর দুইটি ডাটাবেজ ব্যবহার করেছি। জাভা Swing নিয়ে কাজ করেছি। যদিও JavaFX এ অনেক উন্নতমানের UI Design করা যায়। তবে এই মুহূর্তে JavaFX টা ধরবো না। যদিও হালকা করে একটু Touch দিয়েছিলাম। মানে ছোটখাটো স্যাম্পল প্রজেক্ট করেছিলাম। আর জাভা কে ডেস্কটপ সফটওয়্যার এর জন্য বাছাই করেছি কারণ আমার সাবজেক্ট ছিল এটা। করতেই হয়েছিল একসময়।

আমি ডেস্কটপ সফটওয়্যারের জন্য Java, ওয়েবের জন্য যেগুলো ব্যবহার করতেই হয় আর এন্ড্রয়েড এ্যাপ ডেভেলপিং এর জন্য iOnic টা ব্যবহার করি। এগুলো আমার ভালো লাগে।

কেউ অনেকদিন কথা বলতে না পারলে, তাকে যদি কথা বলতে বলা হয় অনেক সময় চুপ থাকার পর বকবক করতেই থাকে। আমিও ব্লগ লিখি না অনেক দিন হয়েছে। তাই বকবকটা একটু বেশি করে ফেললাম মনে হয়। 🙂