Category Archives: আমার লেখালেখি

ক্রমশ দূরে সরে যাচ্ছি

দূরে সরে যাচ্ছে সব
দূরে সরে যাচ্ছে সমস্ত সম্পর্ক,
সমস্ত ভালোবাসার বন্ধন।
দূরে সরে যাচ্ছে সেই চেনা পাখিরা
হয়ে যাচ্ছে অচেনায় পরিণত।

আমিও ক্রমশ দূরে সরে যাচ্ছি
অনেক, অনেক দূরে…
সেই তোমাদেরই মত।

-এলিন (০৪/০১/২০১০)

“আমি ও আমার নিঃসঙ্গতা”

জানি না কি চাই!
অশান্তি? নাকি শান্তির জীবন?
পরম সুখ? নাকি নির্জন মরন?
জানি না কিসে এতো অস্থীরতা!
কার জন্য গুনে যাই হাজার প্রহর!
জেগে জেগে পার করি সমস্ত নিশী-
কেন মিছিমিছি!
আমি জানি না।
শুধু জানি, আমি বেঁচে আছি।
শুধুই থাকি এক অজানা ঘোরে,
নিশ্চুপে আসে যায় স্মৃতি অগোচরে,
নিদারুন খেলে যায় চঞ্চলতা।
বসে বসে দেখি আমি ও

… আমার নিঃসঙ্গতা!

লেখা :  এলিন ( মার্চ-১৩-২০১০ )

“আমার এক বন্ধু প্রয়োজন”

আমার এক বন্ধু প্রয়োজন,
যে বাসবে ভালো হৃদয় দিয়ে-
বুঝবে আমার মন
আমার এক বন্ধু প্রয়োজন॥

আমার এক বন্ধু প্রয়োজন,
যে হৃদয় মাঝে চুপটি করে-
খেলবে সারাক্ষণ
আমার এক বন্ধু প্রয়োজন॥

যে দেখবে আমায় সেই নয়নে-
যাকে বাসবো আমি ভালো,
যে হৃদয় মাঝে জ্বালিয়ে দিবে-
ভালোবাসার আলো

আমার এক বন্ধু প্রয়োজন,
যে বলবে কথা কানে-কানে-
সরলতার সুরে,
যে থাকবে আমার অনুভবে-
পুরো হৃদয় জুড়ে

লেখা : এলিন (এডমিন)

মানবী (কবিতা)

তোমায় ফুল বলি, না চাঁদ বলি-
না- বলি চাঁদের জ্যেতি;
তুমি হলে সাগর তলের-
ঝিনুকে ভরা মতি।
তুমি হলে সুকন্ঠি-
তুমি- সুলোচনা;
তুমি-
সুকেশি, সুনেত্রা, অনন্যা।
তুমি হলে দিনের সূর্য-
রাতের চন্দ্র, তারা;
তুমি হলে শান্ত সাগর-
নীরব স্রোতধারা।
তুমি হলে ফুল-বাগানের
সর্বশ্রেষ্ঠ ফুল;
তুমি হলে পাখির ডাক-
কোকিল ও বুলবুল।
তুমি হলে শিশুর হাঁসি-
সুন্দর কল্পনা;
তুমি হলে কোন দামী পাথরে-
সুন্দর আল্পনা।
তুমি হলে আমার দেশের-
আমার বাংলাভাষা;
তুমি হলে লিওনার্দোর আঁকা –
‘মোনালিসা’।
তুমি হলে শিশুর মুখের-
আধো আধো কথা;
তুমি হলে শ্রেষ্ঠ কবির-
শ্রেষ্ঠ কবিতা।
তুমি হলে গোলাপ গাছের-
ফুঁটে থাকা ফুল;
তুমি হলে সুকুন্তলার-
সুন্দর সেই চুল।
তুমি হলে পেখোম তোলা-
রঙিন ময়ূর;
তুমি হলে শ্রেষ্ঠ গানের-
শ্রেষ্ঠতম সুর।
তুমি হলে নীশী ঘুমের-
সুন্দর স্বপন;
তুমি হলে সুনেত্রার-
সেই সুন্দর নয়ন।
তুমি হলে এ পৃথিবীর যা কিছু ভালো সবই,
তুমি হলে সবচে’ সুন্দর-
অতি পবিত্র ‘মানবী’।

লেখা : এলিন