Category Archives: উইন্ডোজ

Windows 8 এ বিঙ সার্চ অন করা

আমরা পিসিতে যেকোন কিছু সার্চ করতে পারি। এক্ষেত্রে পিসি থেকে রেজাল্ট দেখাবে। পিসিতে না পেলে আর দেখাবে না। কিন্তু ইচ্ছে করলে যাদের ইন্টারনেট রয়েছে, তারা বিং সার্চ যুক্ত করে নিতে পারে। এমনিতে বাইডিফল্ট এটা অন থাকে তবুও যাদের অফ করা রয়েছে তাদের জন্য এই পোস্ট।

১. উইন্ডোজ ৮ এ মাউস পয়েন্টার স্ক্রিনের ডানপাশে নিয়ে কিছু সময় রেখে দিলেই চার্মবার চলে আসবে।

২. সেই বার থেকে Settings এ ক্লি করতে হবে।

৩. স্ক্রিনের নিচে Change PC Settings এ ক্লিক করতে হবে।

৪. বাম পাশ হতে Search and apps এ ক্লিক করতে হবে।

৫. ‘Use Bing to search online’ হতে ছোট বাটনটিতে ক্লিক করে On করে দিতে হবে।

এইবার পিসি চার্মবারের সার্চবক্স হতে কিছু সার্চ করা হলে পিসির সাথে সাথে অনলাইন হতেও সার্চ রেজাল্ট দেখাবে।

উইন্ডোজ ৮ এর কিছু টিপস, ট্রিক্স এবং সিক্রেট

উইন্ডোজ ৮ নিয়ে এই পোস্টটি কয়েকমাস আগেই করে রেখেছিলাম। কিন্তু ব্লগে দেয়া হয় নাই বিভিন্ন সমস্যার কারণে। ইতিমধ্যে নতুন ভার্সন বের হয়ে গেছে। তবুও ভাবলাম পোস্ট যেহেতু করে রেখেছি পাবলিশ করে ফেলি। যা হোক।

আমরা যারা উইন্ডোজ ব্যবহারকারী তারা উইন্ডোজ এর বিভিন্ন ভার্সনের ভিতরে পার্থক্য খুব কমই পেতাম। কিন্তু হঠাৎ করেই উইন্ডোজ তার এই বর্তমান ভার্সন ‘উইন্ডোজ ৮’ কে নিয়ে একদম ভিন্নভাবে আমাদের মাঝে হাজির হয়েছে। কেউ একে ভালো এবং গোছানো বলছে, কেউ বলছে সুন্দর আবার কেউ বা বলছে প্রচন্ড কঠিন ও ঝামেলাপূর্ন। কিন্তু কথা হচ্ছে কঠিন বা সহজ যাই হোক না কেন কমবেশি অনেকেই একে বরণ নিয়েছে। আপন করে নিয়েছে তাদের নিত্যদিনের কাজকর্মের মাঝে।

আজ এই উইন্ডোজ ৮ এর কিছু টিপস, ট্রিক্স নিয়ে আমার এই পোস্ট। যদিও উইন্ডোজ এর সর্বশেষ ভার্সন ৮.১ বের হয়েছে তবে টিপস গুলি উভয়ের জন্যই অনেকটা প্রযোজ্য হবে।

Windows 8 tips

Windows 8 tips

 

  • Lock Screen থেকে কম্পিউটার চালু করা

কম্পিউটার চালু করলেই প্রথমে Lock Screen এসে উপস্থিত হবে। যদিও দেখতে সেটা অনেক সুন্দর কিন্তু অনেকেই বুঝে উঠতে পারবেন না কি করে এই স্ক্রীনটি থেকে পরবর্তী স্ক্রিনে যেতে হবে। কারন সেখানে কোন ম্যাসেজ লেখা নেই। এমনকি কোথায় কোন অপশনও থাকে না যে ইউজার বুঝতে পারবে এটা লকস্ক্রিন।

অথচ এর সমাধন অনেক সহজ। শুধুমাত্র একবার স্পেসবারে চাপ দিতে হবে অথবা মাউসে ক্লিক বা স্ক্রোল করতে হবে। টাচস্ক্রীন হলে টাচ করলেই হবে। চলে আসবে স্বাভাবিক এবং আগের মতই লকস্ক্রীন।

doRefresh – আমার তৈরি একটি ব্যাচ ফাইল (ড্রাইভ রিফ্রেশ করার জন্য)

অনেককেই দেখলাম পিসির সামনে ডেস্কটপে একটি ব্যাচ ফাইল রেখে দেয়। পিসি চালানোর কিছু সময় পরেপরে ওটাতে দ্রুত ক্লিক করে। স্ক্রিনে কিছু লেখা এলোমেলো খেলা করার পর আবার সেগুলো পালিয়ে যায়। এর পর একটি শান্তির নি:শ্বাস ছাড়ে সেই ব্যাচ ফাইলটির মালিক।

আমি সেদিন একই ঘটনা আমার কাজিনের বাসাতেও দেখলাম। জানতে চাওয়ায় ও বলল এটা দিয়ে একই ক্লিকে পিসির সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করে। ঝামেলা কম থাকায় এটা ব্যবহার করে। আমি ফাইলটি খুলে তখন কোড দেখে বুঝলাম ওটা ‘Batch Code’। আমরা ডসের কমান্ডের কথা বলে থাকে এটাই সেই জিনিস।

batch1

আজ কি মনে হল ভাবলাম ব্যাচ ফাইল আমি একটি তৈরি করি যা দিয়ে পিসি রিফ্রেশ হবে তবে আমার নিজের পছন্দ মত। মানে মডিফাই করবো। তাই একটি ব্যাচ ফাইল তৈরি করলাম। নাম দিলাম ‘doRefresh’।

এটি দিয়ে পিসিতে সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করা যায়, এছাড়াও চাইলে বাছাই করে যে কোন একটি ড্রাইভও রিফ্রেশ করা যায়। অনেক সময় সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করার প্রয়োজন পরে না।

নাম : ‘doRefresh’
কাজ : যেকোনো একটি ড্রাইভ রিফ্রেশ করা যায় এবং চাইলে সকল ড্রাইভেও একত্রে রিফ্রেশ করা যায়।

ব্যাচ ফাইলটির ডাউন-লোড লিংক : এখানে ক্লিক করুন অথবা,
এই লিংকটিতে ক্লিক করুন : https://drive.google.com/open?id=0BwasIjIvyEvZNWoybEpDeVhaN0E

এর পর ফোল্ডার থেকে doRefresh এর .bat ফাইল বা .zip ফাইল ডাউনলোড করে নিন।

Dropbox Link : https://www.dropbox.com/sh/v99qk90ef5h5v1q/AAB4qw0svcR5Y3V9bQaHeFnqa?dl=0

লিংকটিতে যাবার পর ফোল্ডারটি ওপেন করে ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।

কেউ যদি কোডগুলো মডিফাই করে নিজের মত করে নিতে চায় সেই জন্য সম্পূর্ণ কোড দেয়া হলও :

VLC Player এর কিছু ভিন্ন কাজ

আমরা অনেকেই VLC Player ব্যবহার করে থাকি। অডিও, ভিডিও মিউজিক, মুভি, গান ইত্যাদি প্লে করতে অনেকেই কমবেশি এই ‘VLC Player’ ব্যবহার করে থাকি। এতে প্রায় সব মিডিয়া ফরম্যাট এর ফাইল খুবই সহজে ও দ্রুত চালু করা সম্ভব। আর এই গুনটির জন্যই এর জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা যে এটি কেবল একটি মিডিয়া প্লেয়ারই নয়, একে দিয়ে আরও কিছু কাজ করানো যায়। যেমন : মিডিয়া vlc-desktop-windowফাইলগুলোকে কনভার্ট করা যায়, ইন্টারনেট থেকে কোন লিংক নিয়ে কোন অডিও বা ভিডিও প্লে করা যায়, ডেস্কটপ এর সকল কাজকর্মকে ইচ্ছে হলেই ভিডিও আকারে রেকর্ড করে রাখা যায়, ওয়েব ব্রাউজারের প্লেয়ার হিসাবে ব্যবহার করা যায়, ইউটিউব ভিডিও প্লে করা যায়, পোডকাস্ট হিসাবে সাবস্ক্রাইব করা যায় যেন ইন্টারনেট থেকে রেডিও বা কোন ভিডিও চ্যানেল এর আপডেট শোনা বা দেখা যায়, ইন্টারনেট রেডিও ব্যবহার করা যায়, ভিডিও এবং অডিওতে ইচ্ছে মত ইফেক্ট ব্যবহার করে প্লে করা যায়, আসকি প্লেব্যাক অপশন রয়েছে যার ফলে কোন ভিডিওকে আসকি মোডে প্লে করানো যায়, কোন ভিডিওকে ডেস্কটপের ওয়ালপেপার হিসাবে ব্যবহার করা যায় যা ফলে সম্পূর্ণ ডেস্কটপ জুরেই ভিডিওটি প্লে হবে এছাড়াও আরও অনেক ধরনের কাজ এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে করা যায়।

আমি সেখান থেকে কয়েকটি প্রয়োজনীয় বিষয় নিয়ে সংক্ষেপে আলোচনা করবো।

গুগল ড্রাইভ : ইন্সটলেশন, সিনক্রোনাইজেশান এবং সেন্ড-টু মেনুতে যুক্ত করা

ইন্সটলেশন

  • Gmail এ একটি একাউন্ট খুলতে হবে (যদি একাউন্ট না থেকে থাকে)।
  • http://drive.google.com এই সাইটটিতে গিয়ে Gmail দিয়ে লগইন করতে হবে।
গুগল ড্রাইভ ডাউনলোড

গুগল ড্রাইভ ডাউনলোড

  • বামপাশের ‘My Drive‘ লেখার নিচে দাগ দেয়া অপশনটি  ‘Connect Drive to your desktop’ এই লিংকটিতে ক্লিক করে ডেস্কটপের জন্য Google Drive ডাউন-লোড করে নিতে হবে।
  • ইনস্টলেশান শেষে ডেস্কটপে Google Drive সফটওয়্যারটি অটোমেটিক রান করবে।