Category Archives: ডাউনলোড

আমার ডেভেলপ করা আরেকটি এন্ড্রয়েড এ্যাপ : “Depression Checker Bangla v.1.0.0”

কিছুদিন ধরে কম্পিউটারের কাজের (বিশেষ করে কোডিং নিয়ে) কোন প্রাকটিস হচ্ছিল না। ভুলেই যাবো এমন ভেবে আবার প্রাকটিস শুরু করলাম। আর তাই এই এ্যাপটি ডেভেলপ করলাম। এ্যাপটির নাম ‘ডিপ্রেশন চেকার বাংলা’। এটি একটি এন্ড্রয়েড এ্যাপ, যা আমার ফোনে এন্ড্রয়েড ৪.২ ভার্সনে ভালো মতই কাজ করে।

এ্যাপটির কাজ হচ্ছে, স্ক্রিনে একটির পর একটি প্রশ্ন আসবে যার উত্তর শুধুমাত্র ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ তে দিতে হবে। এমন সর্বমোট ৯ টি প্রশ্ন আসবে (আমি এই তথ্যগুলো পেয়েছি পত্রিকা থেকে, ইন্টারনেটও দেখেছি)। ব্যবহারকারীর উত্তরগুলোর উপর ভিত্তি করে ফলাফল আসবে। এতে ব্যবহারকারী জানতে পারবে সে আসলেই বিষণ্ণতা বা ডিপ্রেশনে ভুগছে কিনা। খুবই সিম্পল।

depressionchecker

ফিচারসমূহ :

১. সিম্পল ডিজাইন।

২. ‘Move to SD Card’ সাপোর্টে-ড।

 

রিকোয়ারমেন্টস :

১. একটি এন্ড্রয়েড ডিভাইস যাতে বাংলা ইউনিকোড সাপোর্ট করে।

 

আপডেট :

১.  ছোটখাটো সমস্যা দূর করা হয়েছে।

২. বিষণ্ণতা থেকে মুক্তির উপায় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

 

ডাইরেক্ট ডাউন-লোড লিংক : https://drive.google.com/open?id=0BwasIjIvyEvZWjJzOFF1c0g1Ukk

উপরের লিংক হতে ‘DepressionCheckerBN_v1.0.apk’ (APK) ফাইলটিতে ক্লিক করার পর Download বাটনটিতে ক্লিক করে ফাইলটি আপনার ডিভাইসটিতে ডাউন-লোড করে নিন।

ড্রপবক্স : https://www.dropbox.com/sh/gctglhwgoeogbs2/AAC2rI8TKjj_5mG6NmeqmIvYa?dl=0

লিংকে গিয়ে এ্যাপটি সংগ্রহ করে নিন।

 

 

এডোবি ফটোশপ সিসি ভার্সনে অভ্র দিয়ে বাংলা লেখা

আমরা অনেকেই (অভ্র ব্যবহারকারীগন) ফটোশপে বাংলা লেখার জন্য অভ্রতে বাংলা লিখে সেটা কনভার্ট করে বিজয় করে নিয়ে তারপর ফটোশপে বসাই। কিন্তু এখন থেকে ফটোশপের নতুন ভার্সনটিতে এই ঝামেলা করতে হবে না। Adobe Photoshop CC তে বাংলা লেখা সরাসরি অভ্র দিয়ে লেখা যাবে। শুধুমাত্র ফটোশপের কিছু সেটিংস পরিবর্তন করে নিতে হবে।

১) Adobe Photoshop CC ওপেন করুন।
২) Edit মেনুতে ক্লিক করুন > Preferences এ ক্লিক করুন > Type… এ যান।
৩) Choose Text Engine Options বক্সে নির্বাচন করুন ‘Middle Eastern and South Asian’ এবং OK বোতাম চাপ দিন।
৪)ফটোশপটি রিস্টার্ট করুন।

এখন অভ্র দিয়ে ফটোশপে কিছু লিখলে সেগুলো ভালো দেখা যাবে।

যারা অন্য ভার্সন ব্যবহার করেন তারা নিচের লিংক থেকে ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন। এবং সেখান থেকে ‘psd’ ফরম্যাটের ফাইলটি সেলেক্ট করে সেটা ওপেন করুন। টাইপ টুল নিয়ে বাংলা ইউনিকোড ফন্ট বাছাই করে লিখতে শুরু করুন। এই ফাইলটির সাথে বাংলা ইউনিকোড এমবেড করে দেয়া রয়েছে।

ডাউনলোড লিংক :

১. গুগল ড্রাইভ – https://docs.google.com/file/d/0BwasIjIvyEvZZHo4YmYtdS13LWM/edit?pli=1

২. ড্রপবক্স – https://dl.dropboxusercontent.com/u/87802921/PC%20Softwares/Bangla%20Typing%20with%20Other%20Platform.7z

আমার ফটোশপ সিসি ভার্সন এবং সিএস ৫ ভার্সনে টেস্ট করে দেখা আছে। কাজ হয়েছে।

লেখা : এলিন (২৩/০২/২০১৪)

বিজনেস কার্ড ডিজাইন : পর্ব-২ (প্রজেক্ট)

গত পর্বে আমরা বিজনেস কার্ড ডিজাইন নিয়ে আলোচনা করলাম। আজকের পর্বে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রজেক্টের মাধ্যমে বিষয়টি সম্পর্কে আরও সুষ্পষ্ট ধারনা নেবার চেষ্টা করবো।

তাহলে দেখা যাক কি করে একটি বিজনেস কার্ড ডিজাইন করা যায় –

  • প্রথমে ‘এডোবি ইলাষ্ট্রেটর’ ওপেন করুন। আমি এখানে ‘এডোবি ইলাষ্ট্রেটর সিএস ৪’ ব্যবহার করছি।
  • File মেনুতে ক্লিক করে New তে ক্লিক করুন।
  • নিচের ছবির সেটিং অনুযায়ী সেটিংস দিন এবং OK বাটনে চাপ দিন।

1

(এখানে Number of Artboards এর স্থানে 2 দেয়া হয়েছে, কারণ আমরা যে ডিজাইনটি করতে যাচ্ছি সেটা দুইটি সাইড নিয়েই হবে। ফ্রন্ট এবং ব্যাক সাইড।)

বিজনেস কার্ড’ ডিজাইন : পর্ব-১ (আলোচনা)

বিজনেস কার্ড ডিজাইন করার জন্য আমাদের প্রথমে কিছু বেসিক কাজ সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। যেমন : কার্ড এর প্রকৃত সাইজ কেমন হয়, কি কি বিষয় উল্লেখ করা থাকবে, লেখার ধরন কেমন হবে, লেখার সাইজ কেমন হবে ইত্যাদি।

আমি প্রথমে কিছু বেসিক বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করবো এবং পরবর্তীতে একটি বিজনেস কার্ড ডিজাইন করে দেখাবো।

বিজনেস কার্ডটি ডিজাইন করতে আমাদের ব্যবহার করতে হতে পারে ইলাস্ট্রেটর এবং ফটোশপ সফটওয়্যার দুইটিকে। ইলাস্ট্রেটর দিয়ে মূল ফরম্যাট এবং লেখাগুলো হবে আর ফটোশপ দিয়ে কোন ছবি মডিফাই করার প্রয়োজন হলে সেটা করে নিতে হবে। এবং সবশেষে কাজটি ইলাস্ট্রেটরে সেইভ করে নিতে পারি, তাহলে কোয়ালিটি ভালো পাওয়া যাবে।

8

doRefresh – আমার তৈরি একটি ব্যাচ ফাইল (ড্রাইভ রিফ্রেশ করার জন্য)

অনেককেই দেখলাম পিসির সামনে ডেস্কটপে একটি ব্যাচ ফাইল রেখে দেয়। পিসি চালানোর কিছু সময় পরেপরে ওটাতে দ্রুত ক্লিক করে। স্ক্রিনে কিছু লেখা এলোমেলো খেলা করার পর আবার সেগুলো পালিয়ে যায়। এর পর একটি শান্তির নি:শ্বাস ছাড়ে সেই ব্যাচ ফাইলটির মালিক।

আমি সেদিন একই ঘটনা আমার কাজিনের বাসাতেও দেখলাম। জানতে চাওয়ায় ও বলল এটা দিয়ে একই ক্লিকে পিসির সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করে। ঝামেলা কম থাকায় এটা ব্যবহার করে। আমি ফাইলটি খুলে তখন কোড দেখে বুঝলাম ওটা ‘Batch Code’। আমরা ডসের কমান্ডের কথা বলে থাকে এটাই সেই জিনিস।

batch1

আজ কি মনে হল ভাবলাম ব্যাচ ফাইল আমি একটি তৈরি করি যা দিয়ে পিসি রিফ্রেশ হবে তবে আমার নিজের পছন্দ মত। মানে মডিফাই করবো। তাই একটি ব্যাচ ফাইল তৈরি করলাম। নাম দিলাম ‘doRefresh’।

এটি দিয়ে পিসিতে সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করা যায়, এছাড়াও চাইলে বাছাই করে যে কোন একটি ড্রাইভও রিফ্রেশ করা যায়। অনেক সময় সকল ড্রাইভ রিফ্রেশ করার প্রয়োজন পরে না।

নাম : ‘doRefresh’
কাজ : যেকোনো একটি ড্রাইভ রিফ্রেশ করা যায় এবং চাইলে সকল ড্রাইভেও একত্রে রিফ্রেশ করা যায়।

ব্যাচ ফাইলটির ডাউন-লোড লিংক : এখানে ক্লিক করুন অথবা,
এই লিংকটিতে ক্লিক করুন : https://drive.google.com/open?id=0BwasIjIvyEvZNWoybEpDeVhaN0E

এর পর ফোল্ডার থেকে doRefresh এর .bat ফাইল বা .zip ফাইল ডাউনলোড করে নিন।

Dropbox Link : https://www.dropbox.com/sh/v99qk90ef5h5v1q/AAB4qw0svcR5Y3V9bQaHeFnqa?dl=0

লিংকটিতে যাবার পর ফোল্ডারটি ওপেন করে ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।

কেউ যদি কোডগুলো মডিফাই করে নিজের মত করে নিতে চায় সেই জন্য সম্পূর্ণ কোড দেয়া হলও :