কৌতুক

(১)
ডাক্তার : আপনার রোগীর কেমন উন্নতি হচ্ছে?
নার্স : বড্ড স্লো! এতদিনেও আপনি থেকে তুমিতে নামতে পারেনি।


(২)
ইলেকশনের সিজন
– কী তোমার বাবা কোন আসনে দাঁড়ালেন এবার?
– দাঁড়ান নি শ্মশানে শুয়ে পড়েছেন।

(৩)
এক লোক অনেক রাতে ফার্মেসিতে গিয়ে দোকানির কাছে জানতে চাইল প্রচন্ড হিক্কার জন্য কিছু আছে কিনা। দোকানি ভাবল হঠাৎ চমকে দিতে পারলে তার হিক্কা ওঠা বন্ধ হবে। সে এগিয়ে গিয়ে ঠাস করে একটা চড় কষিয়ে দিল লোকটির গালে। লোকটি অবাক হয়ে জানতে চাইল এটা কেন করলে?
‘দেখ, তোমার হিক্কা উঠছে না!’ – দোকানি হেসে জানাল।
‘তা উঠছে না, কিন্তু গাড়িতে বসা আমার স্ত্রীর তো এখনো উঠছে’!

(৪)
স্বামী-স্ত্রীর ছোট্ট সংসারে হঠাৎ করে অতিথি এসে হাজির। যাবার নাম নেই। তখন স্বামী-স্ত্রী যুক্তি করল তারা ঝগড়ার অভিনয় করবে। তাই শুরু হল- হুলস্থূল কান্ড! এই দেখে অতিথি বাক্সপেঁটরা গুছিয়ে পালাল।
স্বামী : হাঃ হাঃ কাজ হয়েছে-এই তোমার লাগে নি তো মিথ্যে মারছিলাম!
স্ত্রী : না আমিও মিথ্যে মিথ্যে কাঁদছিলাম। এ সময় দরজা দিয়ে অতিথিকে ফের বাক্সপেঁটরা নিয়ে ঢুকতে দেখা গেল।
স্বামী-স্ত্রী : আপনি?
অতিথি : আরে আমিও কি সত্যি সত্যি চলে গিয়েছিলাম; মিথ্যে মিথ্যে অভিনয় করলাম তোমাদের মতো হাঃ হাঃ।

(৫)
ছেলে কোর্ট ম্যারেজ করে বউ নিয়ে এসেছে ঘরে। বউ দেশে শাশুড়ির চক্ষুস্থির।
মা : (ফিসফিস করে) এ কী বউ আনলি? কালো, মোটা, ট্যারা!
ছেলে : জোরে বললেও অসুবিধা নেই মা, ও কানেও শোনে না।

পোস্টটি শেয়ার করুন :