“মা, বলতে পারো- আমি কেন একা ?”

মা, বলতে পারো-

আমি কেন এমন ?

কেন আমার জীবনটা-

বটবৃক্ষের মতন ?

সব কিছু সইতে হয়

কইতে হয় মনে,

চুপিচুপি, চুপিচুপি

নীরবে গোপনে!

মা, বলতে পারো-

কেন এই হৃদয়ভরা অস্থিরতা ?

বুকভরা শুধু কেন হাহাকার ?

প্রতিটি নিঃশ্বাসে কেন বিষাক্ততা ?

হৃদকম্পনে কেন এতো ভয়!

মা, বলতে পারো-

কেন এমনটি হয় ?

প্রতিটি রাত কাটে

ভয়ানক স্মৃতিতে,

দিন আসে দিন যায়

পুরনো রীতিতে।

প্রতিটি মুহূর্ত যেন

মৃত্যুর স্বাদ !

মা, বলতে পারো-

আমার কি অপরাধ ?

যখন চাঁদের বুড়ি চরকা কাটে,

চাঁদ হয়ে যায় মামা,

তখন থেকেই আমার জীবনে-

কেন এতো হাঙ্গামা ?

মা, বলতে পারো-

কবে এ জীবনের শেষ ?

কবে পাবো প্রত্যাশিত

মরণের দেখা ?

মা, বলতে পারো-

তুমি থেকেও আমি কেন একা ?

– এলিন (১৯/১২/২০১১)

পোস্টটি শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *